মুক্তিযুদ্ধে মধ্যনগর।।মুক্তিযুদ্ধে স্মৃতিভূষণ কর কর

0
136

স্মৃতিভূষণ কর৷

পেশায় একজন ডাক্তার৷ ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় কাজ করেছেন শরনার্থী শিবিরে৷ মুক্তিযুদ্ধের পর থেকেই মধ্যনগরে চিকিৎসাসেবা দিচ্ছেন ২০/৫০ টাকার বিনিময়ে৷ তাঁর সাথে ২০১৯ সালে ২ জুন কথা হল কয়েক ঘন্টা৷ মধ্যনগরে একটি হাতপাতালের জন্য আক্ষেপ করলেন৷
তিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় কাজ করেছেন ওয়ারেঙ্কায়৷

এই এলাকায় পানির সংকট দেখা দিত বিধায় মহামারী হত৷ মহামারী (কলেরা/ডাইরিয়া ) লাগলে চিকিৎসা দিতেন৷ ওয়ারেঙ্কা ক্যাম্পে বিপ্লবী লালমোহন রায় সেক্রেটারির দায়িত্ব পালন করেছিলেন৷ মধ্যনগরের জহরলাল সরকার শরনার্থীদের (রিফৌজি এন্ট্রি) নিবন্ধনের কাজ করতেন৷
তারা নয়মাস এই শরনার্থী ক্যাম্পে কাজ করেছেন৷ তখন সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত মাঝে মাঝে বড়ছড়া ক্যাম্প থেকে দেখতে যেতেন৷

তৎকালীন তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি , হোসেন বখত, ভাষ্কর প্রমুখ তাহিরপুরের দিকে গেলে তাদেরকে লক্ষ্য করে গুলি ছুরতে থাকলে সবাই ঝাপিয়ে পানিতে পড়েন এবং মানিকগিলা গ্রামের জেলেরা তাদের উদ্ধার করে বড়ছড়া নিয়ে এলে স্মৃতিভূষণ ডাক্তার তাদের চিকিৎসা করেন ৷ কিন্তু আজও কাউকে বলেননি কাজের স্বীকৃতির কথা৷ আমরাও পারিনি সম্মান দিতে৷
বিপ্লবী লালমোহন রায়,জহরলাল সরকার,স্মৃতি ভূষণকরসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি শ্রদ্ধা রইল৷
তথ্যসূত্রঃ অসীম সরকার

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে